ইয়েমেনের মসজিদে সৌদির বিমান হামলায় নিহত ৫

3090
ইয়েমেনের মসজিদে সৌদির বিমান হামলায় নিহত ৫

ইয়েমেনে সৌদি নেতৃত্বাধীন সামরিক জোটের বিমান হামলায় পাঁচজন বেসামরিক নাগরিক নিহত হয়েছেন। দেশটির উত্তরাঞ্চলীয় ওমরান প্রদেশে এ হামলায় একই পরিবারের পাঁচ সদস্য নিহত হয়েছেন বলে অভিযোগ করেছে হুতি বিদ্রোহীরা।

সোমবার হুতি নিয়ন্ত্রিত আল মাসিরাহ টেলিভিশন জানায়, হামলার পর থেকে ওই পরিবারের আরও দুটি শিশু নিখোঁজ রয়েছে।

সোয়াদ শহরে সৌদি জোটের বিমান হামলা শুরু হওয়ার পরপরই ওই পরিবারটি একটি মসজিদে আশ্রয় নিয়েছিল। ওই মসজিদেই বিমান হামলায় তারা নিহত হন বলে জানিয়েছে হুতিরা।

তাদের খোঁজে মসজিদটির ধ্বংসস্তূপে তল্লাশি চালানো হচ্ছে বলে আল মাসিরাহ টেলিভিশনের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে। তবে হুতিদের এই দাবির বিষয়ে সৌদি নেতৃত্বাধীন জোটের পক্ষ থেকে কোনও মন্তব্য পাওয়া যায়নি।

যুদ্ধে বিপর্যস্ত ইয়েমেনে গত পাঁচ বছর ধরে হুতি বিদ্রোহীদের বিরুদ্ধে সামরিক হামলা চালিয়ে আসছে সৌদি আরবের নেতৃত্বাধীন সামরিক জোট। সংযুক্ত আরব আমিরাতও এ জোটের অংশ।

গত সপ্তাহে এই মিলিশিয়ারা বলেছেন, সৌদি তেল স্থাপনায় তারা বিপর্যয়কর হামলা চালিয়েছে। এতে দেশটির তেল উৎপাদন অর্ধেকে নেমে আসে। যদিও ওয়াশিংটন ও রিয়াদ হুতিদের দাবি প্রত্যাখ্যান করে ইরানের ঘাড়ে দায় চাপাচ্ছে।

সৌদি আরবে কয়েক ডজন লক্ষ্যবস্তুতে হামলা চালিয়েছে হুতিরা। রিয়াদের ব্যাপক সামরিক ব্যয় সত্ত্বেও এই ড্রোন হামলা সৌদির অনিরাপত্তাকেই সামনে নিয়ে আসছে।

সৌদি প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র তুরকি আল-মালকি বলেন, গত সপ্তাহে অস্ত্রের নির্ভুল হামলা ও তার ব্যাপ্তি হুতিদের সক্ষমতার বাইরে। ইরান হুতিদের সামনে নিয়ে আসতে চাইলেও এ হামলা ইয়েমেন থেকে ঘটেনি। এ হামলার উৎপত্তি উত্তর দিক থেকে হয়েছে। দক্ষিণের প্রতিবেশীদের কাছ থেকে হামলার যে দাবি করা হয়েছে, তা সত্যি নয়।