রশিদ খানকে নিয়ে চিন্তিত নই: সাদমান

3090
রশিদ খানকে নিয়ে চিন্তিত নই: সাদমান

ঘরোয়া লিগে বাংলাদেশি ব্যাটসম্যানরা অহরহ স্পিন বল খেলেন। বাংলাদেশ দলে এবং দলের বাইরে অনেক ভালো স্পিনার আছেন। ব্যাটসম্যানদের তাই রশিদ খানকে খেলতে অসুবিধা হবে না। আফগানিস্তান স্পিন আক্রমণে শক্তিশালী। তারা সংক্ষিপ্ত সংস্করণের ক্রিকেটে ভালোও করছেন। তবে বাংলাদেশ টেস্ট দলের ওপেনার সাদমান ইসলাম মনে করেন, ওয়ানডে, টি-২০ আর টেস্ট ক্রিকেট আলাদা।

শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে বৃহস্পতিবার সাংবাদিকদের সাদমান বলেন, ’আমরা রশিদ খানকে সামলানো নিয়ে ভাবছি না। সংক্ষিপ্ত সংস্করণের বোলিং আর টেস্টের বোলিং আলাদা বিষয়। এছাড়া ঘরোয়া লিগে আমরা অনেক ভালো স্পিনারের বিপক্ষে খেলি। আন্তর্জাতিক অঙ্গনের বোলাররা হয়তো তাদের চেয়ে ভালো বোলিং করেন। তবে বুদ্ধিদীপ্ত ক্রিকেট খেললে সেটা কোন সমস্যা হবে না।’

ওপেনিংয়ে ব্যাটিং করেন বলে সাদমানকে শুরুতে পেস বোলিং সামলাতে হয়। পেস বোলিং খেলা নিয়েই তিনি বেশি কাজ করেন। কিন্তু আফগানিস্তানের রশিদ খান-মোহাম্মদ নবীরা আছেন। তারা ভালো স্পিন বল করেন। এছাড়া অন্য স্পিনাররাও ভেরিয়েশন দিয়ে বল করতে পারেন। সেসব মাথায় রেখেই প্রস্তুতি নিচ্ছেন বলে জানান অভিষেক টেস্ট দারুণ এক ইনিংস খেলা বাঁ-হাতি এই ব্যাটসম্যান।

শুক্রবার রশিদ খান এবং তার দল বাংলাদেশ পৌছাবে। বিসিবি একাদশের বিপক্ষে তারা দুই দিনের একটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলবে। এরপর টি-২০ ত্রিদেশীয় সিরিজ খেলবে তারা। তবে সাদমানের মনোযোগ একমাত্র টেস্টের সিরিজে। রশিদ খান-জাহির খানদের মতো লেগ স্পিনারদের সামলাতে বাংলাদেশ তাই নেটে লেগ স্পিনার জুবায়ের হোসেনকে ডেকেছে।

এছাড়া আফগানিস্তানের বিপক্ষে টেস্টে তামিম ইকবালকে পাচ্ছে না দল। সাদমানকে তাই শুরুতে দায়িত্ব নিয়ে খেলতে হবে। মাত্র তিন টেস্টের অভিজ্ঞতা সম্পন্ন সাদমানের জন্য কাজটা একটু কঠিন। তবে তিনি মনে করেন, তামিম না থাকায় কোন সমস্যা হবে না। এমনকি ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সাদমানের অভিষেক টেস্টেও দলে ছিলেন না তামিম।

সাদমান বলেন, ’আমি আমার স্বাভাবিক ক্রিকেট খেলার চেষ্টা করবো। ঘরোয়া লিগে বা ’এ’ দলের হয়ে যেভাবে খেলি সেটা প্রয়োগ করার চেষ্টা করবো। বিসিবি একাদশের হয়ে ভারত সফরে টেস্টের ভালো প্রস্তুতি হয়েছে। এছাড়া ’এ’ দলের হয়ে বেশ কিছু চার দিনের ম্যাচ আছে। সামনে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ আছে। সেসব মাথায় রেখে আমি খেলার চেষ্টা করবো।’