গ্রান্ড স্লাম জয়ে রেকর্ড ওসাকার

3090
গ্রান্ড স্লাম জয়ে রেকর্ড ওসাকার

অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের নারী এককে পেত্রা কেভিতোভাকে হারিয়ে গ্রান্ড স্লাম জিতলেন জাপানের টেনিস কন্যা নাওমি ওসাকা। শিরোপা জিতে তিনি হয়ে গেলেন টেনিসের নাম্বার ওয়ান। এ নিয়ে পরপর দুই আসরে গ্রান্ড স্লাম জয়ের রেকর্ড গড়লেন ওসাকা। এর আগের ইউএস ওপেনে সেরেনা উইলিয়ামসকে হারিয়ে এবং কাঁদিয়ে শিরোপা জেতেন নাওমি ওসাকা।

এর আগে ২০০১ সালে পর পর দুই গ্রান্ড স্লাম জিতে রেকর্ডে নাম লেখান জেনিফার ক্যাপরিয়াতি। এছাড়া সেরেনা উইলিয়ামস ২০১৫ সালে টানা দুই গ্রান্ড স্লাম জিতে রেকর্ড গড়েন। কেভিতোভা ২০১৬ সালে বড় হামলার শিকার হন। ছুরিকাঘাত করা হয় তাকে। এরপর আবার অস্ট্রেলিয়ান ওপেন দিয়ে বড় আসরের ফাইনালে ওঠেন তিনি। এর আগে দু’বার উইম্বলডন জেতেন কেভিতোভা। এবার সেরেনা উইলিয়ামসকে হারিয়ে দারুণ কিছুর আভাস দেন।

কিন্তু ২৮ বছর বয়সী এই তারকা তরুণ ওসাকার সঙ্গে পেরে ওঠলেন না। ওসাকা তাকে ৭-৬, ৫-৭ এবং ৬-৪ গেমে হারিয়ে গ্রান্ড স্লাম জিতে নেন। প্রথম সেটে ওসাকার কাছে পিছিয়ে যাওয়ার পর দ্বিতীয়বার সেটে এগিয়ে যান কেভিতোতা। এরপর শেষ সেটে আবার দাপট দেখিয়ে টেনিসের তারকা থেকে সুপারস্টার হয়ে যাওয়া ওসাকা জয়ী হন। ক্যারিয়ারে এই প্রথম মুখোমুখি হলেন তারা দু’জন।

শিরোপা জিতে উচ্ছ্বসিত ওসাকা বলেন, ’আমি সবার সামনে তেমন একটা কথা বলতে পারি না। তবে এবার তা শিখে যাবো আশা করছি। কেভিতোভা, আমি চাইনি এটাই আমাদের প্রথম মুখোমুখি দেখা হোক। আরও অনেক ম্যাচ খেলতি চেয়েছি আপনার সঙ্গে। আপনাকে এবং আপনার দলকে অনেক অভিনন্দন। অসাধারণ ছিলেন আপনি। আপনার সঙ্গে গ্রান্ড স্লামের ফাইনাল খেলতে পেরে আমি নিজেকে সম্মানিত মনে করছি।’

কেভিতোভা বলেন, ’আমার জন্য দারুণ এক টুর্নামেন্ট এটি। এর জন্য আমি আমার পরিবার এবং বন্ধুদের ধন্যবাদ দেবো। তারা আমাকে দারুণ সমর্থন দিয়ে গেছেন। আমি সব সময় চেয়েছি এই টেনিস কোর্টে ফিরে আসতে। আমাকে ফিরতে যারা সহায়তা করেছেন তাদেরকে ধন্যবাদ। আশা করছি সামনের বছর আবার দেখা হবে।’