মোদির ডাকে ক্যাটরিনার সাড়া

3090
মোদির ডাকে ক্যাটরিনার সাড়া

অক্টোবর থেকে ভারতে ছয়টি পণ্যের উৎপাদন, ব্যবহার এবং আমদানি নিষিদ্ধ করেছে ভারত সরকার।

২০২২ সালে মহাত্মা গান্ধীর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে ভারতকে প্লাস্টিকমুক্ত করার উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। আর তা শুরু হচ্ছে ‘ওয়ান-টাইম’ প্লাস্টিকজাত পণ্য দিয়ে।

এই ছয়টি পণ্যের মধ্যে রয়েছে- প্লাস্টিকের ব্যাগ, স্ট্র, প্লেট, ছোট বোতল, কাপ ও শ্যাম্পুর মতো পণ্যের ছোট প্যাকেট।

গবেষণা বলছে, ‘ওয়ান-টাইম’ প্লাস্টিকজাত পণ্যের প্রায় ৫০ শতাংশই সমুদ্রে ফেলার কারণে ধ্বংস হচ্ছে সামুদ্রিক জীবনব্যবস্থা। যা ঢুকে পড়ছে মানুষের খাদ্যশৃঙ্খলেও।

গত সোমবার মুম্বাইয়ে বলিউডের সবচেয়ে বড় পুরস্কার অনুষ্ঠানের একটি, আইফাতে হাজির হয়েছিলেন বলিউডের জনপ্রিয় তারকা ক্যাটরিনা কাইফ। সবুজ কার্পেটে পা রাখলেন ঝলমলে লাল পোশাকে।

তবে এই অনুষ্ঠানে ক্যাটরিনা কথা বলেন অন্য বিষয়ে। সেই আলাপ ছাড়িয়ে যায় বিভিন্ন মহলে। পরিবেশ আর সমাজ নিয়ে যথেষ্ট সচেতন ক্যাটরিনা। সেই অনুষ্ঠানে মোদি সরকারের প্লাস্টিক নিষিদ্ধের উদ্যোগের প্রশংসা করেছেন তিনি।

ডেকান ক্রনিকলের প্রতিবেদন অনুসারে ক্যাটরিনা কাইফ বলেন, মিস্টার মোদি উদ্যোগ এককথায় অসাধারণ। আমাদের কাজ তার উদ্যোগকে সমর্থন দিয়ে সফল করা। আমরা যদি প্লাস্টিকের স্ট্র আর বোতল ব্যবহার করা বন্ধ করতে পারি, তবে তা হবে একটি বড় অর্জন। নিজেদের অস্তিত্বের জন্যই পরিবেশ রক্ষা করা সবচেয়ে জরুরি।

পরিবেশের অবস্থা খুবই খারাপ উল্লেখ করে ক্যাটরিনা বলেন, পরিবেশের বর্তমান অবস্থা খুবই খারাপ। তাই এখন পরিবেশের দিকে নজর না দিলে আমরা একটা ভয়ংকর পরিবেশ বিপর্যয়ের ভেতর পড়ব। ইতিমধ্যে অনেক ক্ষতি হয়ে গেছে, এবার জেগে উঠুন।

ক্যাটরিনা কাইফ ভারতীয় বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ চলচ্চিত্র অভিনেত্রী ও সাবেক মডেল। ইস্টার্ণ আই সাময়িকীর পাঠকদের ভোটে বিশ্বে সবচেয়ে যৌনাবেদনময়ী এশীয় নারী হিসেবে ২০০৮ থেকে ২০১০ পর্যন্ত পরপর তিন বছর চিহ্নিত হয়েছেন।

ব্রিটিশ নাগরিক ক্যাটরিনা কর্ম ভিসা নিয়ে ভারতে কাজ করছেন। তার প্রকৃত নাম ক্যাটরিনা টার্কুট। তিনি বিভিন্ন সামাজিক উন্নয়নমূলক কাজের সাথে যুক্ত আছেন। তার মধ্যে মেয়ে শিশু মৃত্যু প্রতিরোধমূলক কাজ অন্যতম।